সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ০৫:১১ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ:
পঞ্চগড় পৌরসভা (৬ষ্ট তলা) সুপার মার্কেটের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন জোন ভিত্তিক লকডাউনে যাচ্ছে কুড়িগ্রাম লালমনিরহাটে ছাদ থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু কুড়িগ্রামে ১১’শ ভূমিহীন পরিবার পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর নওগাঁয় সাংবাদিক আব্বাস আলীর উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন চাষিদের বিক্ষোভের মুখে হিমাগারের অতিরিক্ত ভাড়া প্রত্যাহার কাঁচিচরে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “বিবেক ২১”এর বৃক্ষরোপন কর্মসূচি পালন গোয়ালঘর থেকে কৃষকের মরদেহ উদ্ধার কুষ্টিয়ায় স্বামী-স্ত্রী ও ছেলেকে রাস্তায় গুলি করে হত্যা কুড়িগ্রামে মাসিক কল্যাণ সভায় টানা তৃতীয় বারের শ্রেষ্ঠ ওসি উলিপুর থানার ইমতিয়াজ কবীর

যেভাবে হতে পারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা

ডেস্ক রিপোর্ট
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২০

প্রাথমিকভাবে কিছু সুপারিশ আসলেও ভর্তি পরীক্ষা কী পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হবে এ ব্যাপারে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়নি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এ জন্য এইচএসসির ফল প্রকাশ পর্যন্ত সময় নেওয়া হবে। তবে অনলাইন ভর্তি পরীক্ষায় না যাওয়া, পরীক্ষার পূর্ণমান ১০০-তে কমিয়ে আনা ও বিভাগভিত্তিক পরীক্ষা নেওয়ার ব্যাপারে ইতোমধ্যেই সুপারিশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনস কমিটি।

গত ২০ অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনস কমিটির ‘এক্সক্লুসিভ’ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়, যেখানে ভর্তি পরীক্ষার বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা হয়। বৈঠক শেষে জানা যায়, কোভিড-১৯ পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে ডিসেম্বরে এইচএসসির ফল প্রকাশের পর বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করা হবে। তবে অনলাইন মাধ্যমে ভর্তি পরীক্ষা হবে না। ডিনস কমিটির বৈঠকে অধিকাংশই এর পক্ষে মত দেননি। বরং বিভাগভিত্তিক ভর্তি পরীক্ষার ব্যাপারে সুপারিশ পাওয়া গেছে। অর্থাৎ দেশের আটটি বিভাগে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এসব পরীক্ষা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দই পরিচালনা করবেন।

এছাড়াও বিশেষ পরিস্থিতির কারণে পরীক্ষার পূর্ণমান ২০০ থেকে কমিয়ে ১০০-তে আনার সুপারিশও করেছে কমিটি।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল জানান, প্রতিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা ২০০ নম্বর হলেও এবার পূর্ণমান থাকবে ১০০। মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক থেকে রেজাল্টের উপর ৮০ নম্বর থাকলেও সেটি কমিয়ে ২০ নম্বর করা হয়েছে। আর এমসিকিউ নম্বর ৭৫ থেকে ৩০ করা হয়েছে। এছাড়া লিখিত পরীক্ষার নম্বর থাকবে ৫০। সবমিলিয়ে ১০০ নম্বরের উপর ভর্তিচ্ছুদের মেধাক্রম তৈরি করা হবে।

সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম জানান, আমরা স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে বিভাগভিত্তিক পরীক্ষা গ্রহণ করবো। যেমন খুলনা থেকে যারা আসতে চায়, তাদের পরীক্ষা খুলনা বিভাগেই হবে। যাতে তাদের ঢাকায় আসতে না হয়। গুণগত মান ধরে রাখার জন্য আমরা এসএসসির ফলাফল দেখবো এবং সেখান থেকে কীভাবে মূল্যায়ন করা যায় সে পদ্ধতি নিয়ে আরও বৈঠকের মাধ্যমে আলোচনা করবো।

এসব বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, ডিনস কমিটি কিছু সুপারিশ করেছে। তবে সেগুলো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নয়। শীঘ্রই ‘জেনারেল এডমিশন মিটিং’-এ অনলাইনে ভর্তি পরীক্ষায় না যাওয়া, বিভাগভিত্তিক পরীক্ষার মত বিষয়গুলো চূড়ান্ত করা হবে। তবে আমরা এইচএসসির ফল প্রকাশের অপেক্ষা করছি। এরপর বিস্তারিত জানানো হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 dainikjonokotha.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com