বৃহস্পতিবার, ০৫ অগাস্ট ২০২১, ০৬:৩৫ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ:

একজন সানি ও সাইকেলের চাকায় দেশ ভ্রমণের গল্প

নিজস্ব প্রতিনিধি
  • Update Time : রবিবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২০

ছেলেটির নাম রেজওয়ান কবির সানি, পিতা: আব্দুর রাজ্জাক। সে রংপুর জেলার কাউনিয়া উপজেলার ভূতছড়া গ্রামের দুরন্তপনা ছেলে। সে রাজশাহী কলেজের বাংলা বিভাগ অনার্স ১ম বর্ষের ছাত্র।

সাইক্লিং করে পুরো দেশ ভ্রমণের নেশা হঠাৎ করেই যেন চেপে বসে তার ঘাড়ে।

তার নিজ মুখেই শুনলাম পুরোটা-

Alhamdulillah For Everything!

Project: Cycling & Run To Support Helpless People!
A Cross Country Ride & 3 Categories Mini Marathon!

Plant 100+ Trees In Different Places.
Provide Food To 8-10 Street Children Everyday.
Extend A Helping Hand To The Helpless People.

শুধু সাইক্লিং ও দৌড় তো অনেক হয়েছে এটা ভেবেই এবার একটু ভিন্নভাবে শুরু করার প্লান ছিলো।
সকল সাইক্লিস্টদের কাছে ক্রসকান্ট্রি একটি ড্রীম প্রোজেক্ট! আমারও এমন একটি ড্রীম প্রোজেক্ট “তেঁতুলিয়া থেকে টেকনাফ” ক্রসকান্ট্রি! এটা বেশ কিছুদিন আগের প্ল্যান ছিল। দৌড়ের ক্ষেত্রেও ঠিক তেমনই। বিগেনার রানার হিসেবে গত কয়েকমাসে বেশ কয়টি ৫, ৭.৫, ১০ কি.মি. ক্যাটাগরির মিনি ম্যারাথন সফলতার সাথে শেষ করেছি। সেই অনুপ্রেরণা থেকে ৫, ৭.৫, ১০ কি.মি. ক্যাটাগরির মিনি ম্যারাথন রেখেছিলাম এই প্রোজেক্টে। প্লান অনুযায়ী প্রথমে ক্রস কান্ট্রি রাইডটি শেষ করে পরবর্তীতে দৌড় তিনটি শেষ করার পরিকল্পনা করেছিলাম।

সে অনুযায়ী গত ১ নভেম্বর ২০২০ তারিখে তেঁতুলিয়া থেকে টেকনাফের উদ্দেশ্যে সাইক্লিং মিশন শুরু করি।

অতিক্রান্ত সাইক্লিং রুট:
বাংলাবান্ধা – পঞ্চগড় – ঠাকুরগাঁও – দিনাজপুর – ফুলবাড়ি – বগুড়া – টাঙ্গাইল – ঢাকা – কুমিল্লা – ফেনী – চট্টগ্রাম – কক্সবাজার – টেকনাফ।

১ম দিন (০১-১১-২০২০) তেঁতুলিয়া – পঞ্চগড় – ঠাকুরগাঁও রুটে সাইক্লিং করেছি ১০০ কি.মি.।
২য় দিন (০২-১১-২০২০) ঠাকুরগাঁও – নবাবগঞ্জ, দিনাজপুর রুটে সাইক্লিং করেছি ১৪৫ কি.মি.।
৩য় দিন (০৩-১১-২০২০) নবাবগঞ্জ, দিনাজপুর – বগুড়া রুটে সাইক্লিং করেছি ৭৯ কি.মি.।
৪র্থ দিন (০৪-১১-২০২০) বগুড়া -সিরাজগঞ্জ – টাঙ্গাইল – গাজীপুর – ঢাকা রুটে সাইক্লিং করেছি ২০২ কি.মি.
৫ম দিন (০৫-১১-২০২০) ঢাকা – নারায়ণগঞ্জ – মুন্সিগঞ্জ- কুমিল্লা রুটে সাইক্লিং করেছি ১০৭ কি.মি।
৬ষ্ঠ দিন (৬-১১-২০২০) কুমিল্লা -ফেনী – চট্রগ্রাম রুটে সাইক্লিং করেছি ১৫৩ কি.মি.।
৭ম দিন (০৭-১১-২০২০) চট্টগ্রাম – ঈদগাহ, কক্সবাজার রুটে সাইক্লিং করেছি ১২৬ কি.মি.
৮ম দিন (০৮-১১-২০২০) ঈদগাহ, কক্সবাজার – টেকনাফ রুটে সাইক্লিং করেছি ১৩০ কি.মি.।

যার মধ্য দিয়ে ৮ নভেম্বর ২০২০ তারিখে ১০০০ কি.মি. অধিক পথ সাইক্লিং করে ক্রস কান্ট্রি রাইডটি সফলতার সাথে শেষ করতে সক্ষম হয়েছি।

এরপর মিনি ম্যারাথন তিনটি (৫ কি.মি./৭.৫ কি.মি./১০ কি.মি.) ২৩ নভেম্বর, ২৪ নভেম্বর, ২৬ নভেম্বর সম্পন্ন করেছি।

এই যাত্রায় আমি শুধু সাইক্লিং করেছি এবং দৌড়েছি বিষয়টা এমন নয়। আমি পুরো প্রোজেক্ট জুড়ে বিভিন্ন স্থানে ১০০ অধিক বৃক্ষরোপণ করেছি। যাত্রাপথে প্রতিদিন ৮-১০ জন ছিন্নমূল পথশিশু ও অসহায় মানুষের খাবারের ব্যবস্থা করেছি। সুবিধাবঞ্চিত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র (কম্বল) বিতরণ করেছি। যা ছিল আমার জন্য চ্যালেঞ্জিং। কিন্তু কিছু মানুষের সহযোগিতায় আমি তা করতে পেরেছি। এই অর্জন শুধুমাত্র আমার একার নয়। যারা আমাকে বিভিন্নভাবে পেছন থেকে সহযোগিতা করেছেন এই অর্জন তাদেরও। তাদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

আপতত সকল কার্যক্রম সমাপ্ত হওয়ার মধ্য দিয়ে আমি প্রোজেক্টির সমাপ্তি ঘোষণা করছি। এবং আবারও মহান আল্লাহ তা’আলা নিকট শুকরিয়া আদায় করছি আমার সমস্ত স্বপ্নগুলোকে বাস্তবে রুপ দেয়ার জন্য। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন। যেন ভবিষ্যতে আমি আরও ভালো ভালো উদ্যোগ গ্রহণ করতে পারি। ততদিন পর্যন্ত সবাই ভালো থাকবেন।

ধন্যবাদ!
সৃষ্টিকর্তা সকলের মঙ্গল করুন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 dainikjonokotha.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com