সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১২:১০ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ:
ফুলবাড়ীতে কঠোর লকডাউন কার্যকরে কঠোর প্রশাসন ফুলবাড়ীতে তরুণদের উদ্যোগে বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবা চালু কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে ৫শ দুস্থ্য পরিবার পেল ঈদ উপহার লালমনিরহাট পৌরবাসীকে ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন, জনতার মেয়র রেজাউল করিম স্বপন ফুলবাড়ীতে কেটে নেয়া ধান গাছ থেকে ফের ধান উৎপাদন পঞ্চগড়ে নদী ভাঙ্গন রক্ষার দাবিতে স্থানীয়দের মানববন্ধন  জোরপূর্বক জমি দখলের চেষ্টা; সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগীরা ফুলবাড়ীতে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ সচ্ছলরা পেয়েছেন গৃহহীনদের ঘর, প্রতিবাদে কুড়িগ্রামে মানববন্ধন উলিপুরে ১০ ছাত্রলীগ নেতার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার

রংপুরে স্কুল শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের পর হত্যা, আসামীর ফাঁসি

জুয়েল বাবু, রংপুর প্রতিনিধি
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২০

রংপুরে প্রথম শ্রেণির এক স্কুল শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের পর হত্যার দায়ে প্রধান আসামী রিয়াদ প্রধানের (২৪) ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। এছাড়াও ওই মামলায় অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় এক নারীকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার ( ১ ডিসেম্বর) দুপুরে রংপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল -৩ এর বিচারক মোস্তফা পাভেল রায়হান এ রায় দেন। এসময় অভিযুক্তরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রায় ঘোষণার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সরকারি কৌঁসুলি অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর ( এপিপি) মাফজিয়া হাসান দিবামণি। চাঞ্চল্যকর এই মামলার রায় ঘোষণাকে ঘিরে সকাল থেকেই আদালত চত্বরে বাড়তি নিরাপত্তা দেয়া হয়। রায় ঘোষণার পুর্বে বিচারকের এজলাসের বাহিরে প্রজেক্টরের মাধ্যমে ৪৬ পৃষ্ঠার রায়ের কপি প্রদর্শন করা হয়। এসময় বাহিরে উৎসুক মানুষের উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে।

এদিকে মামলা ও আদালত সুত্রে জানা যায়, রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার রামনাথপুর গ্রামের দিনমজুর শাজাহান আলীর আট বছরের শিশুকন্যা তানজিলা খাতুন চুমকি স্হানীয় দুরামিঠিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল। ঘটনার দিন ২০১৬ সালের ১৪ জুন বিকেলে বাড়ির সামনের গাছ বাগানে খেলতে গিয়েছিল শিশুকন্যা চুমকি। এসময় প্রতিবেশী মমিন প্রধানের ছেলে রিয়াদ প্রধান আম দেওয়ার কথা বলে ওই শিশুটিকে নিজ বাড়িতে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন।

এসময় শিশুটি চিৎকার করলে ভয়ে আসামী রিয়াদ প্রধান তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। পরে বাড়ির গৃহকর্মী ধলি বেগমের ( ৫০) সহায়তায় শিশুটির মৃত দেহটি একটি সিমেন্টের বস্তায় ভরে খাটের নিচে গর্ত খুঁড়ে মাটি চাপা দিয়ে রাখেন। ওইদিন সন্ধ্যায় চুমকির কোন খোঁজ খবর না পেয়ে পুরো এলাকায় মাইকিংয়ের ব্যবস্হা করে চুমকির পরিবার।

এর তিনদিন পর ১৭ জুন সকালে পীরগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে সন্দেহভাজন আসামী রিয়াদ প্রধানের বাড়ির খাটের নিচ থেকে চুমকির মরদেহটি উদ্ধারসহ আসামী রিয়াদ প্রধানকে গ্রেফতার করে। ঘটনার পর গৃহকর্মী ধলি বেগম পলাতক থাকলেও পরে তাকে ঢাকা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ঘটনার তদন্ত শেষে ওই বছরের ১২ ডিসেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা এসআই নজির হোসেন। চার বছর বিচারাধীন থাকার পর মঙ্গলবার চুমকি হত্যা মামলার রায় ঘোষণা করা হয়। এতে মৃত্যুদণ্ডের পাশাপাশি এক লাখ টাকা জরিমানা আদায়ের নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক। বাদীপক্ষের আইনজীবী এ্যাডভোকেট কাওছার আলী এই রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে ফাঁসির দণ্ডাদেশ দ্রুত কার্যকর করার দাবি জানান।

অন্যদিকে আসামী পক্ষে মামলা পরিচালনাকারী এ্যাডভোকেট কাজী মাহফুজুল ইসলাম , রায়ের পুর্নাঙ্গ কপি হাতে পাওয়ার পর উচ্চ আদালতে আপিল করার সুযোগ রয়েছে বলে তিনি জানান।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 dainikjonokotha.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com