শনিবার, ১৯ জুন ২০২১, ০৪:০০ পূর্বাহ্ন

কুড়িগ্রাম টেক্সটাইল মিলের ইনচার্জ সামছুল আলমের খুঁটির জোর কোথায়

ডেস্ক রিপোর্ট
  • Update Time : রবিবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২০

কুড়িগ্রাম টেক্সটাইল মিলের ইনচার্জ সামছুল আলম শেখের বিভিন্ন অনিয়ম ও দূর্নীতির বিরুদ্ধে সাবেক কর্মচারী, নিহতের পরিবার ও সচেতন এলাকাবাসীর ব্যানারে দফায় দফায় মানববন্ধন করা হয়।

এছাড়াও ভূক্তভোগীরা বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দিলেও রহস্য জনক কারণে ওই ইনচার্জ স্বপদে রয়েছে বহাল তবিয়তে।

স্থানীয় সমাজকর্মী সোহেল আহমেদ, ভূক্তভোগী সিকিউরিটি গার্ড আশরাফুল হক শ্রমিক মানিক, নিহত সিকিউরিটি গার্ড নুর আলমের মেয়ে রিনা বেগম সহ ভুক্তভোগীরা জানান, মিল ইনচার্জ সামছুল আলম শেখ এর দায়িত্ব পালন কালিন অবস্থায় কোন কারণ ব্যতিরেকে চাকুরীচ্যুত করা এবং পরে আবার মোটা অংকের উৎকোচ দাবী করা, ধাক্কা দিয়ে একজন সিকিউরিটি গার্ডকে হত্যাসহ নানান অভিযোগের প্রতিকার চেয়ে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান।

মিলের সিকিউরিটি গার্ড নিহত নুর আলমের কন্যা রিনা পারভীন দাবি করেন, কাজের লোক দিতে না পারায় মিল ইনচার্জের ধাক্কা খেয়ে রক্তাক্ত বাবা চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। তার কোন খরচ দেয়াতো দূরের কথা পাওনাদিও মেটানো হয়নি।

সিকিউরিটি গার্ড আশরাফুল হক দাবি করেন, তিনি বাড়ি থেকে ছুটি কেটে এসে জানতে পারেন তাকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। ত্রিশ হাজার টাকা না দেয়ায় তাকে পূণর্বহাল করা হয়নি।

এমন বিস্তর অভিযোগের ঘটনা বিভিন্ন স্থানীয় ও জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় বিভিন্ন শিরোনামে একের পর এক সংবাদ প্রকাশ হলেও কোন পদক্ষেপ নেয়নি কর্তৃপক্ষ।

আরও জানা যায় যে, কুড়িগ্রাম ট্রেক্সটাইক মিলের ভিতরে এক বছরের জন্য জমি লিজনেন মোঃ আজগার আলী বলেন আমার লিজ নেওয়া উপর সেচের জন্য মটর পাম্প ইলেকট্রিক মিটা ও কোদাল কাচি জমি চাষের সকল যন্ত্র এবং জমির শরিশা, পেঁয়াজ, আদা ইত্যাদি ফসল সামসুল আলম

এর নির্দেশে তুলে নেন নিয়ে অাত্তসাত করা হয়। এবিষয়ে মুখ খুল্লে ইন্চার্জ বলে তোমার জামাই ও তোমাকে ভিতরের তালা বন্ধ করে রাখবো।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 dainikjonokotha.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com