বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ০৪:৪৯ পূর্বাহ্ন

রংপুর পুলিশ সুপার এর মানবিক দৃষ্টি খুঁজে নিলো আশ্রয়হীন প্রতিবন্ধী বৃদ্ধা আমেনাকে

আবু জাফর সোহেল রানা, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি
  • Update Time : শুক্রবার, ৮ জানুয়ারী, ২০২১

রংপুর জেলা পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার বিপিএম (বার) পিপিএম’র নির্দেশনায় গঙ্গাচড়া পশ্চিম ইচলী গ্রামের আশ্রয়হীন ৯৪ বছরের বৃদ্ধা আমেনা বেগমের খোঁজখবর নিতে যান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( সার্কেল এ) আবু তৈয়ব মোঃ আরিফ হোসেন ও গঙ্গাচড়া থানা অফিসার ইনচার্জ সুশান্ত কুমার সরকার।

জানা যায়, গত রবিবার ( ৩রা জানুয়ারী ২০২০খৃীঃ) জাতীয় দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার অনলাইন পোর্টালে রংপুর গঙ্গাচড়ার পশ্চিম ইচলী গ্রামে অন্যের বাড়ীতে আশ্রিত ৯৪ বৎসর বয়সী অসহায় বৃদ্ধা আমেনা বেগমকে নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন ও বার্ধক্যজনিত কষ্টের উপর প্রকাশিত, ” মোক একনা ঘড় দেন বাবা” শিরোনামে সংবাদ টি রংপুর পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকারের নজরে পড়ে । সংবাদটির ভিত্তিতে রংপুর জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার, বিপিএম-বার, পিপিএম বৃদ্ধা আমেনা বেগমের বর্তমান অবস্থান ও তার খোজ খবর সহ সমস্যাগুলো জানতে তার নির্দেশনায় ঐ দিন রাতেই অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু তৈয়ব মোঃ আরিফ হোসেনের নেতৃত্বে গঙ্গাচড়া থানা অফিসার ইনচার্জ ও সঙ্গীয় অফিসার ফোর্সসহ পশ্চিম ইচলী গ্রামের জনৈক ব্যাক্তির আশ্রয়ে থাকা বাড়িতে দেখা করেন ।

স্থানীয়দের কাছে খোঁজ খবর নিয়ে ও বৃদ্ধা অসহায় শ্রবণপ্রতিবন্ধি আমেনা বেগমের সাথে কথা বলে তার চাহিদা মোতাবেক একটি থাকার ঘরের ব্যবস্থা করা প্রয়োজন মর্মে পরিদর্শন টিম পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার কে অবহিত করেন বলে জানা যায়। গঙ্গাচড়া থানা অফিসার ইনচার্জ সুশান্ত কুমার সরকার জানান, এসপি মহোদয়ের সাথে আলোচনা করে তার একটি থাকার ঘরের ব্যবস্থা করা হবে মর্মে আশ্বস্থ করা হয়েছে। পরিদর্শনে এসে তাৎক্ষণিকভাবে তাকে দুইটি কম্বল ও খাদ্যের জন্য সহযোগিতা প্রদান করা হয়।

এদিকে রংপুর জেলা পুলিশ প্রশাসন এর ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ৯৪ বছরের শ্রবণ প্রতিবন্ধি বৃদ্ধা আমেনা বেগমের খোঁজখবর নেয়া ও ঘড় তৈরি করে দেয়ার আশ্বাসের বিষয়টি গঙ্গাচড়া উপজেলা প্রশাসনের দৃষ্টি গোচর হয়। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পরের দিন সোমবার তাকে তিনটি কম্বল ও কিছু গরম কাপড় প্রদান করা হয়।
গঙ্গাচড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাসলিমা বেগম আমেনা বেগমকে একটি ঘর দেওয়ার কথা ইত্তেফাক প্রতিনিধি সহ অন্যান্য প্রতিবেদক দের কেও নিশ্চিত করেন।

শ্রবণ প্রতিবন্ধী আশ্রয়হীন আমেনা বেগম ৯৪ বৎসর বয়সে উপনীত হয়েও সরকার গৃহীত সামাজিক সুরক্ষা বেষ্টনীর আওতায় আনা হয়েছে কি না তা নিয়ে এখন কথা উঠছে স্থানীয় সচেতন মহলে। তারা বলছেন, পুলিশ বিভাগ এমন একটি সেবা মূলক প্রশাসন, এ বিভাগের উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাগণদের জন্য মানব সেবা করার বেশ ভালো সুযোগ রয়েছে তার উৎকৃষ্টতম উদাহরন এটি। পুলিশের কাজ ঘড় তৈরি করে দেয়া, কম্বল বিতরন করা নয় কিন্তু মানবিক গুনাবলী সম্পন্ন যে কেউ সহযোগিতার হাত বাড়াতেই পারেন। একজন পুলিশ কর্মকর্তা বা একজন পুলিশ সুপার যখন এরকম জায়গায় কাজ করেন, ভিজিট করেন তখন এগুলো যাদের কাজ ও দায়িত্ব তাদের আর শীতনিদ্রার ঘুম ছেরে আসা ছারা উপায়ন্তর থাকে না।

উল্লেখ্য রংপুর জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার বিপিএম ( বার) পিপিএম ইতিপূর্বে অসহায় আশ্রয়হীন দের জন্য নিজস্ব উদ্যোগে ও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সহযোগিতায় ঘড় নির্মান করে আশ্রয়ের ব্যাবস্থা করে দিয়েছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 dainikjonokotha.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com