রবিবার, ২০ জুন ২০২১, ০৩:২৭ অপরাহ্ন

রংপুরে আগুনে পুড়িয়ে গৃহবধূকে হত্যার চেষ্টা, থানায় মামলা দায়ের 

রংপুর ব্যুরো প্রধান
  • Update Time : সোমবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

সোমবার দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করে নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ জীবন নেছা (৩৫) জানায়, তার স্বামী, ভাসুর ও ননদ যৌথভাবে তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার ওপর অমানুষিক নির্যাতন চালায়। এতে সে সজ্ঞাহীন হয়ে পড়লে তাঁর শ্বশুর আব্দুস সামাদের নির্দেশে তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা চালানো হয়। এরই এক পর্যায়ে রোমানা আক্তার (১৫) মাকে উদ্ধারের জন্য এগিয়ে আসলে তার উপরেও চালানো হয় অমানুষিক নির্যাতন। পরে গ্রাম পুলিশের সহযোগিতায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টার (ওসিসি) তে তাকে ভর্তি করা হয়। ঘটনাটি ঘটেছে রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার ভাংনী ইউনিয়নের কালামপুর গ্রামে।

জানা যায়, জানা যায়, প্রায় ১৮ বছর আগে রংপুরের পীরগাছা উপজেলার পিয়ারপাড়া গ্রামের আব্দুল জলিলের কন্যা জীবন নেছার সাথে একই জেলার মিঠাপুকুর উপজেলার ভাংনী ইউনিয়নের কালামপুর গ্রামের আব্দুস সামাদ মেম্বারের ছেলে রফিকুল ইসলামের বিয়ে হয়। দাম্পত্য জীবনের এক পর্যায়ে  এক কন্যা সন্তানের মা হলে তাঁর উপর নেমে আসে যৌতুকের কালো থাবা। এতে মেয়ের সুখের কথা ভেবে ৩ লাখ টাকা ব্যায়ে একটি পাকাঘড় নির্মাণ করে দেন জীবন নেছার বাবা আব্দুল জলিল। এরপরেও লালসা কমেনি যৌতুকলোভী পাষণ্ড স্বামী রফিকুল ইসলামের। স্ত্রীর উপর অনিহা এনে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে রফিকুল। এতে পথের কাটা হয়ে দাড়ান স্ত্রী জীবন নেছা। এ কারণেই তাকে চিরতরে বিদায় করে দিতে অমানুষিক নির্যাতন চালানো হয়।

এ ঘটনায় সাতজনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেন নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ জীবন নেছার বাবা। এ বিষয়ে অভিযুক্ত রফিকুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এবিষয়ে কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 dainikjonokotha.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com