শনিবার, ১৯ জুন ২০২১, ০৩:১০ পূর্বাহ্ন

সহায়তার আশায় দিন কাটছে আয়শা বেওয়ার

কল্লোল রায়ঃ
  • Update Time : বুধবার, ২১ এপ্রিল, ২০২১

কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলা উমরমজিদ ইউনিয়নের বালাকান্দি কৈকুড়ি গ্রামের মৃত মজর উদ্দিনের স্ত্রী আয়শা বেওয়া(৭৪)। নিজের জায়গা নেই। রাস্তার পাশেই কোনমতে ছোট একটি কুঁড়েঘর নির্মাণ করে কোন রকমে রাত্রী যাপন করছেন তিনি। চাল ফুটে হয়ে পড়া বৃষ্টির জল তার অসহায়ত্বকে আরও কয়েকগুণ বাড়িয়ে দেয়।

স্বামী হারা আয়শা বেওয়া সন্তান থাকলেও তারাও নিজেরাই অচল। তার নিজস্ব কোনো বাড়ি ভিটা নেই। বৃষ্টিতে তার কষ্ট কয়েকগুণ বেড়ে যায়। শুধুমাত্র একটি চালের টিন চেয়ে তিনি কান্নাজড়িত কন্ঠে সকলের নিকট আবেদন করেও সাড়া পাননি।

এমতাবস্থায় বৃদ্ধার জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহারের একটি ঘরের দাবি প্রতিবেশীদের।

প্রতিবেশীরা জানান, ২০ বছরের বেশি সময় ধরে আয়শা বেওয়া এখানে বসবাস করে আসছে।সন্তানদের কাছে এবং সরকারের কাছে কোন সুবিধা না পাওয়ায় তার ভাগ্যের কোন উন্নতি হয়নি।

কোন ধরনের ভাত কার্ড পাননি উল্লেখ করে আয়শা বেওয়া বলেন, পেটের তাগিদে সারাদিন অপরের বাড়িতে পরিশ্রম শেষে ঘরে এসে আরামে ঘুমাবো তাও পারি না। কখন যে ঝড় বাতাসে ঘরটি ভেঙে পড়ে এজন্য রাত জেগে থাকতে হয়। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আকুতি করছি আমাকে যেন একটা ঘর করে দেন।

এ ব্যাপারে রাজারহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার নুরে তাসনীম বলেন, আমরা বিষয়টি সম্পর্কে অবগত। দেখছি তাকে কোথায় একটা সরকারি ঘর করে দেওয়া যায়।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 dainikjonokotha.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com