মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ০১:১৬ পূর্বাহ্ন

চাষিদের বিক্ষোভের মুখে হিমাগারের অতিরিক্ত ভাড়া প্রত্যাহার

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:
  • Update Time : রবিবার, ১৩ জুন, ২০২১

আলু চাষিদের বিক্ষোভের মুখে অবশেষে হিমাগারে আলু সংরক্ষণের অতিরিক্ত ভাড়া প্রত্যাহার করেছে কুড়িগ্রামের হিমাগার মালিক পক্ষ। শনিবার (১২ জুন) রাত সাড়ে আটটার দিকে হিমাগার মালিক পক্ষ ও আলু চাষিদের প্রায় দুই ঘন্টাব্যাপী বৈঠকের পর অতিরিক্ত ভাড়া প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত হয়। বৈঠকে উপস্থিত আলু চাষিদের প্রতিনিধি এবং আলু চাষি ও ব্যবসায়ীদের প্রতিবাদ কর্মসূচি বাস্তবায়নে গঠিত আহ্বায়ক কমিটির নেতা শাহ্ আলম মোস্তফা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে শনিবার (১২ জুন) দুপুরে জেলার সদর উপজেলার কাঁঠালবাড়ি বাজার এলাকায় কুড়িগ্রাম-রংপুর মহাসড়ক অবরোধ করে হিমাগারের ভাড়া বৃদ্ধির সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন কুড়িগ্রামের আলু চাষিরা।

আলু চাষিদের প্রতিনিধি শাহ্ আলম মোস্তফা জানান, শনিবার বিক্ষোভ কর্মসূচির পর আলু চাষি ও ব্যবসায়ীদের ডেকে পাঠান জেলার এ হক হিমাগার লি. এর মালিক ও কুড়িগ্রাম-২ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) পনির উদ্দিন আহমেদ। পরে শনিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে এমপি’র বাসায় আলু চাষিদের প্রতিনিধিদের সাথে ফলপ্রসু বৈঠকে হিমাগারের বর্ধিত ভাড়া ৩শ’ ৩০ টাকা বাতিল করা হয়। তবে পূর্বের ভাড়ার চেয়ে দশ টাকা বাড়িয়ে বস্তা প্রতি ২৬০ টাকা ভাড়া নির্ধারণ করা হয়। কমিশন বাদ দিলে এই ভাড়া ২শ’ থেকে ২ শ’৩০ টাকা পর্যন্ত হবে।

শাহ্ আলম মোস্তফা বলেন, ‘ আলু চাষিদের আন্দোলন এবং গণমাধ্যম কর্মীদের আন্তরিক সহযোগীতার ফলে হিমাগার মালিক পক্ষ বর্ধিত ভাড়া বাতিল করতে বাধ্য হয়েছেন। এতে করে কৃষকদের জয় হয়েছে, কৃষির জয় হয়েছে। আমরা সকলের কাছে কৃতজ্ঞ।’

এর আগে শনিবার দুপুরে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ কর্মসূচীতে আলু চাষিরা জানান, গত বছর হিমাগারে আলুর বস্তা প্রতি ভাড়া ছিল ১শ’ ৮০ থেকে ২শ’ টাকা (কমিশন বাদে)। এবছর আলুর উৎপাদন বেশি হলেও কৃষকরা ন্যায্য মূল্য পাচ্ছেন না। আলু চাষিদের এমনিতেই লোকসান গুনতে হচ্ছে। উপরন্তু করোনা মহামারির কারণে আলু রফতানি করাও সম্ভব হচ্ছে না। কিন্তু আলু হিমাগারে রাখার চার মাস পর হিমাগার মালিকরা কোনও কারণ ছাড়াই শুধুমাত্র অতিরিক্ত মুনাফার লোভে হিমাগারের ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। অথচ ভাড়া বাড়ানোর যৌক্তিক কোনও কারণ নেই। এতে করে আলু চাষিরা লোকসানের সম্মুখীন হয়ে মাঠে মারা পড়বেন বলে দাবি করেন বিক্ষোভে অংশ নেওয়া আলু চাষিরা। তারা অবিলম্বে এই বর্ধিত ভাড়া প্রত্যাহারের দাবি জানান এবং সরকারের সংশ্লিষ্ট দফতরের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। অন্যথায় তারা বৃহত্তর আন্দোলনে যাওয়ার ঘোষণা দেন।

এ ব্যাপারে জানতে এ হক হিমাগারের মালিক ও কুড়িগ্রাম-২ আসনের এমপি পনির উদ্দিন আহমেদের সাথে শনিবার রাতে যোগোযোগের চেষ্টা করা হলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া গেছে। তবে মোস্তফা কোল্ড স্টোরেজের মালিক গোলাম মোস্তফার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এই প্রতিনিধিকে বলেন, ‘এ ব্যাপারে এমপি সাহেবকে ( পনির উদ্দিন আহমেদ) দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তিনি আলু চাষিদের সাথে বৈঠক করে যে সিদ্ধান্ত দেবেন সেটাই কার্যকর হবে।’

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 dainikjonokotha.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com