সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১২:৫৫ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ:
ফুলবাড়ীতে কঠোর লকডাউন কার্যকরে কঠোর প্রশাসন ফুলবাড়ীতে তরুণদের উদ্যোগে বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবা চালু কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে ৫শ দুস্থ্য পরিবার পেল ঈদ উপহার লালমনিরহাট পৌরবাসীকে ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন, জনতার মেয়র রেজাউল করিম স্বপন ফুলবাড়ীতে কেটে নেয়া ধান গাছ থেকে ফের ধান উৎপাদন পঞ্চগড়ে নদী ভাঙ্গন রক্ষার দাবিতে স্থানীয়দের মানববন্ধন  জোরপূর্বক জমি দখলের চেষ্টা; সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগীরা ফুলবাড়ীতে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ সচ্ছলরা পেয়েছেন গৃহহীনদের ঘর, প্রতিবাদে কুড়িগ্রামে মানববন্ধন উলিপুরে ১০ ছাত্রলীগ নেতার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার

ফুলবাড়ীতে দায়সাড়া ভাবে চলছে সড়ক সংস্কার কাজ

ফুলবাড়ি প্রতিনিধি
  • Update Time : সোমবার, ১৪ জুন, ২০২১

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার শাহবাজার হতে পশ্চিম ধনিরাম পর্যন্ত দীর্ঘ ৩ হাজার ৪শ’ মিটার সড়কের সংস্কার কাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ তুলেছে এলাকাবাসী।

রকমারি বৃক্ষরাজিতে আচ্ছাদিত নয়নাভিরাম সড়কটি কয়েক দফা বন্যার কবলে পড়ে ধ্বসে যায় দু’পাশের মাটি, উঠে যায় কার্পেটিং। সড়কের বেশির ভাগ অংশে তৈরি হয় খানাখন্দ। আর দীর্ঘ দুই যুগেরও বেশি সময় সড়কের সংস্কার কাজ না হওয়ার ভেঙ্গে সরু হওয়া সড়কে চলাচলে চরম ভোগান্তি পোহাতে হয় যাতায়াতকারীদের।

অবশেষে সড়কটি সংস্কারের উদ্যোগ নেয় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল দপ্তর। তিন দশমিক চার কিলোমিটার দীর্ঘ ও তিন মিটার প্রস্থ সড়কের সংস্কার কাজ বাস্তবায়নের দায়িত্ব পান কুড়িগ্রামের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স ফাহিম ট্রেডার্স। চুক্তি অনুযায়ী চলতি বছরের ২১ অক্টোবর সড়কের সংস্কার কাজ শেষ হওয়ার কথা। সড়কের সংস্কার কাজ নিম্নমানের হওয়ায় হতাশ এলাকাবাসী।

জানাগেছে, সড়কটির স্থায়ীত্ব বিবেচনায় নানা কর্মপরিকল্পনা গ্রহন করে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। সড়কে মাটি ভরাট, স্লিপিং, পাইলিং, ব্লকিং এবং কার্পেটিং কাজের জন্য বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ১ কোটি ৬৩ লক্ষ ৪৭ হাজার ১৫৬ টাকা।
সড়কের সংস্কার কাজে কি কি অনিয়ম হচ্ছে যানতে চাইলে এলাকাবাসীরা জানান, সড়কের স্লিপিং ঠিকমত করা হয়নি। অনেক জায়গায় সড়ক মাপের চাইতে সরু করা হয়েছে। রাস্তায় নিম্নমানের ইট ও খোয়া ফেলা হয়েছে। সড়কের দু’পাশে ৩ ফুট মাটি ফেলে ভরাট করার কথা থাকলেও তা করা হয়নি। অনেক যায়গায় সড়কের গোড়ার মাটি কেটে উপড়ে ফেলা হয়েছে। মাটি নিয়মমত ঢালু না করায় বৃষ্টির পানিতে সড়কটি ভেঙ্গে যাওয়ার আশংকা করছে স্থানীয়রা। সড়ক রোলিং করার জন্য একেবারেই কম ওজনের রোলার ব্যবহার করা হয়েছে। ফলে খোয়া ফেলে রোলিং শেষ করার পরপরই আলগা হয়ে খোয়া উঠে যাচ্ছে। সর্বোচ্চ ২ ইঞ্চি সাইজের খোয়া ফেলার নিয়ম থাকলেও ৩/৪ ইঞ্চির খোয়াও ফেলা হয়েছে। এর উপরে কার্পেটিং করা হলে সড়কটি দ্রুত নষ্ট হয়ে যাবে বলে আশংকা এলাকাবাসীর।

মোট কথা সড়কের সংস্কার কাজে পরতে পরতে অনিয়ম। আমরা এলাকাবাসী বেশ কয়েকবার কাজের অনিয়মের অভিযোগ তুলে কাজ বন্ধ করতে বলেছি। কিন্তু ঠিকাদারের লোকজন আমাদের কোন কথা কানেই তোলে নি। আর কাজটি তদারকির দ্বায়িত্ব পালনকারী কাউকে সংস্কার কাজ পরিদর্শনে আসতে দেখিনি। আমরা দীর্ঘদিন ধরে চলাচলে চরম ভোগান্তি সহ্যের পরে এই সড়কের সংস্কার কাজ এমন দায়সাড়া ভাবে হোক তা চাই না। যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানাচ্ছি, আপনারা নিয়মমাফিক সড়কটির সংস্কার কাজ বাস্তবায়নে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিন। অন্যথায় সড়কের সংস্কার কাজে অনিয়মরোধে এলাকাবাসীরা মিলে আগামী দিনে কঠোর কর্মসূচি গ্রহন করবেন বলে জানান তারা।

সড়কের সংস্কার কাজে অনিয়মের বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী আসিফ ইকবাল রাজিব বলেন, সড়কটির সংস্কার কাজ বাস্তবায়ন শুরুর পর থেকে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে আমাদের কিছুই জানানো হয়নি। সড়কের সংস্কার কাজে অনিয়ম থাকলে সরেজমিনে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 dainikjonokotha.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com