সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ০৩:৪৬ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ:
ফুলবাড়ীতে কঠোর লকডাউন কার্যকরে কঠোর প্রশাসন ফুলবাড়ীতে তরুণদের উদ্যোগে বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবা চালু কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে ৫শ দুস্থ্য পরিবার পেল ঈদ উপহার লালমনিরহাট পৌরবাসীকে ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন, জনতার মেয়র রেজাউল করিম স্বপন ফুলবাড়ীতে কেটে নেয়া ধান গাছ থেকে ফের ধান উৎপাদন পঞ্চগড়ে নদী ভাঙ্গন রক্ষার দাবিতে স্থানীয়দের মানববন্ধন  জোরপূর্বক জমি দখলের চেষ্টা; সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগীরা ফুলবাড়ীতে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ সচ্ছলরা পেয়েছেন গৃহহীনদের ঘর, প্রতিবাদে কুড়িগ্রামে মানববন্ধন উলিপুরে ১০ ছাত্রলীগ নেতার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার

ভারতে নদী ও লেকের পানিতে মিলেছে করোনা: আইআইটি

ডেক্স রিপোর্ট:
  • Update Time : শনিবার, ১৯ জুন, ২০২১

ভারতের গুজরাট রাজ্যের সাবরমতী নদী এবং দুইটি লেকের পানিতে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব পেয়েছেন গবেষকেরা। ভারতীয় প্রতিষ্ঠান  আইআইটি-গান্ধীনগরের গবেষকদের পরিচালিত এক গবেষণায় এই তথ্য জানা গেছে। তবে পানিতে পাওয়া এই ভাইরাসগুলো জীবিত নাকি মৃত সেই বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি। ইউনিসেফের অর্থায়নে গবেষণাটির নেতৃত্ব দিয়েছেন প্রফেসর মনিশ কুমার। তিনি সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন ভবিষ্যতে বিপর্যয় এড়াতে আরও গবেষণার প্রয়োজন।

গত বছরের সেপ্টেম্বর ও ডিসেম্বরের মধ্যে সাবরমতী নদী এবং কাকরিয়া ও চান্দোলা হ্রদ থেকে পানির নমুনা সংগ্রহ করে গবেষণাটি পরিচালনা করেছে আইআইটি। প্রতিষ্ঠানটির আর্থ সায়েন্সেস বিভাগের অধ্যাপক মনিশ কুমার জানিয়েছেন পরীক্ষায় করোনাভাইরাসে উপস্থিতির কথা জানা গেলেও পরীক্ষা পদ্ধতিতে এটা জীবিত নাকি মৃত তা শনাক্ত করা যায়নি।

নদী ও লেকের পানিতে ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়ার পর এসব পানির নমুনা আরও পরীক্ষা করে দেখতে গুজরাটের বায়োটেকনোলোজি রিসার্চ সেন্টারে (জিবিআরসি) পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে আহমেদাবাদ মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন (এএমসি)। কর্পোরেশনের পানি সম্পদ বিষয়ক প্রকৌশলী হারপালসিং জালা বলেন, পানি বিশ্লেষণের জন্য অনুমোদিত সংস্থা জিবিআরসি। তিনি বলেন, ‘আমরা গত এক বছর ধরেই তাদের কাছে নমুনা পাঠাচ্ছি আর তারা রাজ্য সরকারের কাছে প্রতিবেদন দেয়।’ তবে আইআইটি গবেষকদের পাওয়া তথ্য নিয়ে কোনও ধারণা নেই বলে জানান তিনি।

মনিশ কুমার বলেন, ‘এখন পর্যন্ত পানির মধ্য দিয়ে ভাইরাসটির সংক্রমণের প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তারপরও প্রতিষ্ঠানগুলোকে একসঙ্গে হয়ে এই বিষয়ে আরও গবেষণা করা দরকার। পর্যবেক্ষণ করা দরকার।’ তিনি বলেন, মূত্র কিংবা মৃতদেহের মাধ্যমে পানিতে করোনা পৌঁছালে সেগুলো মৃত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

তবে কোনও করোনারোগীর মুখ থেকে পানিতে এই ভাইরাস পৌঁছালে সেগুলো জীবিত থাকার সুযোগ আছে বলেও জানান মনিশ কুমার। তাদের পাওয়া তথ্য ইউনিসেফের কাছে উপস্থাপন করা হয়েছে।

সূত্র: ইন্ডিয়া টুডে, আনন্দবাজার পত্রিকা

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 dainikjonokotha.com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com